• ডায়াল ১৬৬২২ (২৪/৭)
  • গ্রুপ বীমা

    কর্পোরেট সমাধান

    ভূমিকা

    গ্রুপ জীবন বীমা একটি জনগোষ্ঠীকে একাধিক বীমা সুবিধা দিয়ে থাকে। গ্রুপ বীমা পরিকল্প ঝামেলা মুক্ত এবং এটি স্বনির্ধারিত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে একদল ব্যক্তিকে একটি মূল বীমা পলিসির আওতায় এনে সুবিধা প্রদান করে থাকে। গ্রুপ বীমা তাদের বীমা গ্রহীতাদের যেকোনো অসুস্থতা, দুর্ঘটনা, মৃত্যু বা হাসপাতালে চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট সুবিধা এবং মাতৃত্বকালীন সুবিধার ক্ষেত্রে পরিবারকে আর্থিক সুরক্ষা নিশ্চিত করে।

    গ্রুপ বীমা একটি পরিকল্প যা কর্মীদের প্রয়োজন আনুসারে নির্ধারিত। একটি প্রতিষ্ঠান তাদের গ্রুপ সদস্যদের সমানুপাতিক বীমা পরিকল্প অথবা স্বনির্ধারিত বীমা পরিকল্প সরবরাহ করতে পারে। সুবিধাগুলো কেবলমাত্র বিমাগ্রহীতাদের জন্যই নয় বরং তাদের পরিবারের নির্ভরশীল সদস্য যেমন স্ত্রী, সন্তান, এবং পিতা-মাতার জন্য প্রযোজ্য। গ্রুপ বীমা বিভিন্ন ছোটবড় সংস্থা যেমন সমিতি, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান যাদের কমপক্ষে ১০ জন কর্মী আছে তাদের জন্য উপযুক্ত যা এই বীমার আওতায় থাকা সদস্যদের নিরাপত্তা ও কাজের উৎসাহ প্রদান করে।

    গার্ডিয়ান গ্রুপ বীমা কেন করবেন?

    • গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স প্রতিষ্ঠা করেছেন এদেশের স্বনামধন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এপেক্স, ব্র্যাক এবং স্কয়ার গ্রুপ।
    • এটি এদেশের সর্ব বৃহৎ গ্রুপ বীমা তহবিল।
    • স্বাস্থ্য কার্ড দেখিয়ে গার্ডিয়ান লাইফ এর মনোনীত হাসপাতালে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভর্তি সুবিধা
    • সহজ বীমা দাবি উত্থাপনঃ আমরা আপনাদের প্রতিষ্ঠানে প্রতিনিধি পাঠাবো আপনার বীমা দাবী বিষয়ক কাগজ পত্র সংগ্রহ করার জন্য।
    • বীমা দাবিঃ আপনি বীমা দাবি ইনটিমেশন এবং সেটেলমেন্ট পর্যায়ে নিশ্চিতকরণ এসএমএস পাবেন। আমাদের মনোনীত ওয়েব পোর্টালে গ্রাহকরা তাদের দাবির বর্তমান অবস্থান এবং তার শেষ তিনটি নিস্পত্তি দাবি সম্পর্কিত তথ্য দেখতে পারবেন।
    • নগদ টাকা ব্যতীত চিকিৎসা সেবাঃ এটা সাধারণত গার্ডিয়ান লাইফের মনোনীত হাসপাতালগুলোতে হাসপাতালে ভর্তিজনিত ব্যয়ভার এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।
    • দেশের চতুর্থ প্রজন্মের জীবন বীমা সংস্থাগুলোর মধ্যে সর্বাধিক প্রিমিয়াম উপার্জনকারী।

    বীমা সুবিধাসমূহঃ

    • জীবন বীমা সুবিধা ( স্বাভাবিক মৃত্যু / দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু/ স্থায়ী ও আংশিক অক্ষমতা)
    • গুরুব্যাধী – ১৮ টি গুরুতর রোগের চিকিৎসা সুরক্ষা
    • আই পি ডি সুবিধা / হাসপাতালে ভর্তি জনিত ব্যয়ভার
    • ও পি ডি সুবিধা/ বহির্বিভাগ ব্যয়ভার
    • প্রসূতিকালীন ব্যয়ভার
    • দাঁতের চিকিৎসার ব্যয়ভার
    • চোখের চিকিৎসার ব্যয়ভার

    গ্রুপ মেয়াদী বীমাঃ

    কর্মীদের যত বেশি আর্থিক সুরক্ষা থাকবে তারা ততো বেশি অনুপ্রাণিত থাকবেন। গ্রুপ টার্ম ইনস্যুরেন্স এর মাধ্যমে একটি প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের অনিশ্চয়তার মাত্রা হ্রাস করতে পারে এবং এর ফলে সকল কর্মী তাদের প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে নিজেদের প্রয়োজনের সময় আর্থিক সহায়তা পেলে প্রতিষ্ঠানের প্রতি আরও অনুগত হয়ে ওঠে। অন্যদিকে, প্রতিষ্ঠানও তাদের কর্মীদের পাশে দাঁড়াতে পেরে এবং গ্রুপ বীমার আওতায় আনতে পেরে কর্মক্ষেত্রে সুশাসন বজায় রাখতে পারে।

    যদি কোন বীমাকৃত সদস্য অসুস্থতা বা দুর্ঘটনার কারণে মৃত্যুবরণ করেন (কভারেজের ১ম বছর আত্মহত্যাজনিত মৃত্যু এবং এইচআইভি / এইডস সম্পর্কিত রোগে মৃত্যু ব্যতিত) তাহলে এইরকম মৃত্যুর লিখিত প্রমাণ প্রাপ্তির পরে গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স ৭ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটিকে উক্ত সদস্যের জন্য বীমাকৃত অর্থ প্রদান করবে।

    গুরুব্যাধী সুবিধা

    গুরুব্যাধী সুবিধা একটি বিশেষ পরিপূরক সুবিধা যা কোনো প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। নিম্নে বর্ণিত যেকোন একটি রোগ নিশ্চিতকরণের সময় বীমায় মনোনীত সদস্যগণ আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকে যা বীমা চুক্তি শুরু হওয়ার অন্তত তিন মাস পরে রোগ নির্ণয় সাপেক্ষে প্রদান করা হয়। নিম্নে উল্লেখিত ১৮ টি গুরুব্যাধীর ক্ষেত্রে বীমা চুক্তিতে উল্লেখিত অর্থ প্রদান করা হবেঃ

    ১। ক্যান্সার

    ২। হার্ট অ্যাটাক

    ৩। স্ট্রোক

    ৪। করোনারি আর্টারি (বাইপাস) সার্জারি

    ৫। কিডনি অকার্যকারিতা (শেষ পর্যায়ের রেনাল ডিজিজ)

    ৬। প্রধান কোন অঙ্গ প্রতিস্থাপন

    ৭। পক্ষাখাত

    ৮। একাধিক ধমনীর অকার্যকারিতা

    ৯। অঙ্গহানি

    ১০। দৃষ্টি শক্তি হ্রাস/ অন্ধত্ব

    ১১। হার্ট ভাল্ভ প্রতিস্থাপন

    ১২। আর্টারি সার্জারি

    ১৩। অ্যাপ্লাস্টিক অ্যানিমিয়া

    ১৪। মস্তিষ্কের বেনাইন টিউমার

    ১৫। দীর্ঘস্থায়ী ফুস্ফুস রোগ/ শেষ পর্যায়ে ফুস্ফুসের রোগ

    ১৬। বধিরতা/ শ্রবণশক্তি হ্রাস

    ১৭। ব্রেইন টিউমার

    ১৮। কথা বলার ক্ষমতা হারানো

    গ্রুপ মেডিকেল বীমা পরিকল্পনা

    বর্তমান সময়ে পরিবারের ভারসাম্যহীন খরচের সাথে সামঞ্জস্য রেখে স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন নিশ্চিত করা বেশ কষ্টসাধ্য। চিকিৎসা বীমা মূলত হাসপাতালে ভর্তি অভ্যন্তরীণ কিংবা বহিরাগত রোগী এবং গুরুতর অসুস্থতার কারণে চিকিৎসা নেওয়া রোগীদের ব্যয় বহন করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। এই সাশ্রয়ী চিকিৎসা পরিকল্প কর্মীদের মেডিকেল কভারেজ দেওয়ার পাশাপাশি তাদের পরিবারের সদস্যদেরও (স্ত্রী ও নির্ভরযোগ্য সন্তান) চিকিৎসা সুবিধা প্রদান করে থাকে।

    এই বীমা মূলত বীমাগ্রহীতাদের অসুস্থতা কিংবা দুর্ঘটনার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা গ্রহণের ব্যায়ের খরচ সরবরাহ করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। নিম্নলিখিত বিষয়গুলোতে চিকিৎসা বীমা প্রদান করা হয়ঃ

    ১। দৈনিক হাসপাতালের রুম ভাড়া

    ২। আইসিইউ / সিসিইউ লিমিট প্রতি ভর্তির ক্ষেত্রে

    ৩। আইসিইউ / সিসিইউ সহ মোট হাসপাতালের রুম ভাড়া

    ৪। রোগীর চিকিৎসা চার্জ, পরামর্শ ফি, ঔষধাদি, চিকিৎসা সরঞ্জামাদি এবং অসুস্থতা এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক পরিষেবা (রুম এবং আইসিইউ / সিসিইউ চার্জ ব্যতীত) এবং তদন্ত সম্পর্কিত ব্যায় এই বীমা সুবিধার অন্তর্ভুক্ত।

    এই সুবিধা ৪৫ বছর বয়স পর্যন্ত মহিলা কর্মকর্তা/কর্মচারী/স্ত্রীর জন্য প্রযোজ্য। প্রসূতি/প্রসূতিকালীন সুবিধাগুলো হলো রুম, বোর্ড এবং সাধারণ নার্সিং কেয়ার, হাসপাতালের বিশেষ পরিসেবা এবং মা হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন সময়ে শিশু/ শিশুর সাধারণ নার্সিং কেয়ার এবং চিকিৎসক প্রদত্ত সকল চার্জ এর জন্য প্রযোজ্য। গর্ভাবস্থায় প্রসব, গর্ভপাত বা আইনী গর্ভপাতসহ গর্ভধারণের সাথে সম্পর্কিত যে কোন সমস্যা মাতৃত্বকালীন সুবিধার অন্তর্ভুক্ত। নিম্নলিখিত বিভাগগুলিতে মাতৃত্বকালীন সুবিধা দেওয়া হয়ঃ

    • সাধারণ ডেলিভারি
    • সিজারিয়ান/ইক্টোপিক/ অতিরিক্ত জরায়ু গর্ভাবস্থা
    • আইনী গর্ভপাত বা গর্ভপাত

    • চিকিৎসকদের পরামর্শ ফি
    • মেডিকেল তদন্তের ফি
    • মেডিসিন ব্যায়

    • চিকিৎসকদের পরামর্শ ফি
    • অমলগাম, রেজিন প্লাস্টিক এবং অস্থায়ী/স্থায়ী ফিলিংস
    • রুটিন এক্সট্রাকশন
    • ঔষধ
    • এক্স-রে
    • রুট ক্যানেল চিকিৎসা
    • স্কেলিং এবং পলিশিং (প্রতিটি সদস্যের জন্য বছরে একবার)

    • চিকিৎসকদের পরামর্শ ফি
    • প্রতিসরণ ত্রুটির জন্য দৃষ্টি পরীক্ষা
    • লেন্স এবং চশমা

    দুর্ঘটনাজনিত বীমা পরিকল্পঃ

    (পরিপূরক অক্ষমতা সুবিধা)

    দুর্ঘটনাজনিত বীমা পরিকল্পটি বিভিন্ন ধরণের অক্ষমতার সময় সুবিধা দিয়ে থাকে। এই সুবিধা নির্ধারণের জন্য দূর্ঘটনার কারণে সৃষ্ট অক্ষমতা সমূহকে নিম্নোক্ত বিভাগে ভাগ করা হয়েছেঃ

    দূর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর ক্ষেত্রে বীমা প্রতিষ্ঠান বীমাকারী সংস্থাকে মৃত্যুদাবীর অতিরিক্ত হিসাবে মনোনীত অর্থ প্রদান করে যদি বীমায় অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তি বাহ্যিক এবং সরাসরি দূর্ঘটনার কারণে মারা যায় । সাধারণত ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে বীমা দাবিটি নিষ্পত্তি করা হয়।

    দূর্ঘটনার কারণে শারীরিক আঘাত যা একজন ব্যক্তিকে কোন ব্যবসা, চাকুরী বা তার খরচ চালানোর জন্য যেকোন কাজ করা থেকে বিরত রাখে, সে অক্ষমতা যদি ছয় মাস স্থায়ী হয় এবং একজন ডাক্তার কর্তৃক স্থায়ী অক্ষম বলে প্রমাণিত হয় তবে তা স্থায়ী এবং সম্পূর্ণ অক্ষমতা বলে বিবেচিত হবে এবং বীমা কোম্পানি বীমাকৃত সংস্থাকে ঐ বীমার আওতাধীন ব্যক্তির সাপেক্ষে মনোনীত আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে।

    স্থায়ী এবং আংশিক শারীরিক অক্ষমতা শ্রম আইনের প্রথম তফসিল হিসাবে মেনে চলে।

    কোনও দুর্ঘটনার কারণে সরাসরি স্থায়ী, আংশিক ও সম্পূর্ণ অক্ষমতার ক্ষেত্রে, উল্লিখিত শর্তাদী ও শর্তাবলী অনুসারে ক্ষতিপূরণটি নিম্নলিখিত তফসিলের মধ্যে বর্ণিত আর্থিক সুবিধা কোম্পানির দ্বারা নিয়োগকর্তাকে প্রদান করা হবে এবং যেখানে প্রযোজ্য হবে, এক দুর্ঘটনার ফলে একাধিক আঘাতের জন্য কেবলমাত্র একটি বড় অঙ্কের আর্থিক সুবিধা প্রদান করা হবে:

    প্রথম তফসিল

    ক্রমিক নংজখমের বর্ণনাউপার্জন ক্ষমতা হানির শতাংশ
    উভয় হাত হারানো বা উপরের অংশ থেকে কেটে ফেলা১০০
    এক হাত বা এক পা হারানো১০০
    উভয় চোখের দৃষ্টি শক্তি এমন পরিমানে হারানো যা দৃষ্টি শক্তির প্রয়োজন হয় এরকম কোন কাজ করার ক্ষেত্রে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়১০০
    উভয় পা বা উরু কেটে ফেলা অথবা এক পাশের পা বা উরু কেটে ফেলা এবং যে কোন পা হারানো১০০
    মুখাবয়বের মারাত্মক বিকৃতি১০০
    সম্পূর্ণ বধিরতা১০০
    কাঁধের জোড়া পর্যন্ত কেটে ফেলা৮০
    কাঁধের নীচে এমন ভাবে কেটে ফেলা যেখানে কাটার পর অবশিষ্ট অংশ এক্রোমিয়নের সামনের দিক থেকে ২০ সেন্টিমিটারের কম থাকে৭০
    এক্রোমিয়নের অগ্রভাগের ২০ সেন্টিমিটার থেকে অলিক্রেননের অগ্রভাগের ১১ সেন্টিমিটারের কম পর্যন্ত কেটে ফেলা৬০
    ১০এক হাত অথবা বৃদ্ধাঙ্গুলি এবং এক হাতের চারটি আঙ্গুল হারানো অথবা অলিক্রেননের অগ্রভাগের ১১ সেন্টিমিটার নিচ থেকে কেটে ফেলা৬০
    ১১বৃদ্ধাঙ্গুলি হারানো৩০
    ১২বৃদ্ধাঙ্গুলি এবং তার হাড় হারানো৩০
    ১৩এক হাতের চারটি আঙ্গুল হারানো৫০
    ১৪এক হাতের তিনটি আঙ্গুল হারানো৩০
    ১৫এক হাতের দুটি আঙ্গুল হারানো২০
    ১৬বৃদ্ধাঙ্গুলির হাড়ের শেষ অংশ হারানো – কিংবা কেটে ফেলা১০
    ১৭উভয় পায়ের পাতা কেটে ফেলা৯০
    ১৮উভয় পায়ের পাতা প্রক্সিম্যাল থেকে পায়ের গোড়ালি এবং আঙ্গুলের ক্ষুদ্র হাড়ের গ্রন্থি পর্যন্ত কেটে ফেলা৮০
    ১৯উভয় পায়ের সকল আঙ্গুল এবং পায়ের গোড়ালির হাড়ের সাথে আঙুলের ক্ষুদ্র হাড়ের গ্রন্থির সংযোগ পর্যন্ত হারানো৪০
    ২০প্রক্সিম্যাল থেকে প্রক্সিম্যাল ইন্টারফেলানজিয়েল গ্রন্থি পর্যন্ত উভয় পায়ের সকল আঙ্গুল হারানো৩০
    ২১ডিসটাল থেকে প্রক্সিম্যাল ইন্টারফেলানজিয়েল গ্রন্থি পর্যন্ত উভয় পায়ের সকল আঙ্গুল হারানো২০
    ২২কোমরের নিম্নভাগ থেকে কেটে ফেলা৯০
    ২৩কোমরের নিম্নভাগ থেকে এমনভাবে কেটে ফেলা যাতে কেটে ফেলার পর অবশিষ্ট অংশ লম্বায় গ্রেট ট্রচান্টারের অগ্রভাগ থেকে ১২.৫০ সেন্টিমিটারের অধিক, কিন্তু উরুর বাহিরে না যায়৮০
    ২৪কোমরের নিম্নভাগ থেকে এমনভাবে কেটে ফেলা যাতে কেটে ফেলার পর অবশিষ্ট অংশ লম্বায় গ্রেট ট্রচান্টারের অগ্রভাগের থেকে ১২.৫০ সেন্টিমিটারের অধিক না হয়৭০
    ২৫মধ্য উরু থেকে হাঁটুর নীচে ৯ সেন্টিমিটার পর্যন্ত কেটে ফেলা৬০
    ২৬হাঁটুর নীচে এমন ভাবে কেটে ফেলা যাতে অবশিষ্ট ৯ সেন্টিমিটারের বেশি কিন্তু ১২.৫০ সেন্টিমিটারের অধিক না হয়৫০
    ২৭হাঁটুর নিচে এমনভাবে কেটে ফেলা যাতে অবশিষ্ট অংশ ১২.৫ সেন্টিমিটার এর অধিক না হয়৪০
    ২৮এক পায়ের পাতা কেটে ফেলা যার ফলে দাঁড়ানো সম্ভব হয় না৩০
    ২৯প্রক্সিম্যাল থেকে পায়ের গোড়ালির হাড়ের সাথে আঙুলের ক্ষুদ্র হাড়ের গ্রন্থি পর্যন্ত এক পায়ের পাতা কেটে ফেলা৩০
    ৩০পায়ের গোড়ালির হাড়ের সাথে আঙুলের ক্ষুদ্র হাড়ের গ্রন্থি পর্যন্ত এক পায়ের সকল আঙ্গুল হারানো২০

    অন্যান্য জখম

    ৩১কোন জটিলতা ছাড়া এক চোখ হাড়ানো, অন্য চোখ স্বাভাবিক৪০
    ৩২কোন জটিলতা বা চোখের মনির বিকৃতি ছাড়াই এক চোখের দৃষ্টিশক্তি হারানো, অন্য চোখ স্বাভাবিক৩০
    ডান বা বাম হাতের আঙ্গুল (তর্জনী আঙ্গুল)
    ৩৩সম্পূর্ণ হারানো১৪
    ৩৪দুইটি ক্ষুদ্র অস্থি হারানো১১
    ৩৫আঙ্গুলের একটি হাড় হারানো
    ৩৬হাড় নয় বরং আঙ্গুলের অগ্রভাগ কেটে ফেলা
    (মধ্যম আঙ্গুল)
    ৩৭সম্পূর্ণ১২
    ৩৮দুইটি ক্ষুদ্র অস্থি
    ৩৯একটি হাড়
    ৪০হাড় নয় বরং আঙ্গুলের অগ্রভাগ কেটে ফেলা
    (অনামিকা অথবা কনিষ্ঠ আঙ্গুল)
    ৪১সম্পূর্ণ
    ৪২দুইটি ক্ষুদ্র অস্থি
    ৪৩আঙ্গুলের একটি হাড়
    ৪৪হাড় নয় বরং আঙ্গুলের অগ্রভাগ কেটে ফেলা
    ডান বা বাম পায়ের আঙ্গুল-(বৃদ্ধাঙ্গুল )
    ৪৫পায়ের পাতার অস্থির সঙ্গে আঙ্গুলের ছোট অস্থির গ্রন্থি পর্যন্ত১০
    ৪৬ক্ষুদ্র অস্থির কিছু অংশ হারানো সহ, আংশিক
    (অন্য আঙ্গুল)
    ৪৭পায়ের পাতার অস্থির সঙ্গে আঙ্গুলের ছোট অস্থির গ্রন্থি পর্যন্ত
    ৪৮ক্ষুদ্র অস্থির কিছু অংশ হারানো সহ, আংশিক
    (বৃদ্ধাঙ্গুলি ছাড়া এক পায়ের দুইটি আঙ্গুল)
    ৪৯পায়ের পাতার অস্থির সঙ্গে আঙ্গুলের ছোট অস্থির গ্রন্থি পর্যন্ত
    ৫০ক্ষুদ্র অস্থির কিছু অংশ হারানো সহ, আংশিক
    (বৃদ্ধাঙ্গুলি ছাড়া এক পায়ের তিনটি আঙ্গুল)
    ৫১পায়ের পাতার অস্থির সঙ্গে আঙ্গুলের ছোট অস্থির গ্রন্থি পর্যন্ত
    ৫২ক্ষুদ্র অস্থির কিছু অংশ হারানো সহ, আংশিক
    (বৃদ্ধাঙ্গুলি ছাড়া এক পায়ের চারটি আঙ্গুল)
    ৫৩পায়ের পাতার অস্থির সঙ্গে আঙ্গুলের ছোট অস্থির গ্রন্থি পর্যন্ত
    ৫৪ক্ষুদ্র অস্থির কিছু অংশ হারানো সহ, আংশিক

    উপরে উল্লেখিত না থাকা স্থায়ী অক্ষমতা কতটুকু গুরুতর তার উপর ভিত্তি করে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হবে। তবে সেক্ষেত্রে তালিকাভুক্ত অক্ষমতার সাথে উল্লেখিত না থাকা স্থায়ী অক্ষমতার তুলনা করে ক্ষতিপূরণের মূল্য নির্ধারণ করা হবে। কোন অঙ্গ স্থায়ী আংশিক ও পূর্ণভাবে অক্ষম হলে তা স্থায়ী আংশিক অথবা পূর্ন অক্ষমতা হিসাবে গন্য হবে। বীমা করার পূর্বে কোন অক্ষমতার ক্ষেত্রে এই সুবিধা প্রদান করা হয় না। যদি আরও আঘাত ঘটে তবে কেবলমাত্র বর্তমান আঘাতের পূর্বে এবং পরে অবস্থার মধ্যে পার্থক্য বিবেচনা করা হবে।

    যোগাযোগ করুন